Home অন্যান্য পৃষ্ঠা তানোরে সরকার নির্ধারীত দামে বিক্রি হচ্ছেনা আলু

তানোরে সরকার নির্ধারীত দামে বিক্রি হচ্ছেনা আলু

171
0

তানোর প্রতিনিধি : তানোরে হাট-বাজারে সরকার আলু’র দাম নির্ধারণ করে দিরেও তার প্রভাব পড়েনি। ফলে, আগের দামেই বিক্রি হচ্ছে আলু। কোল্ড ষ্টোর গুলোতে আলু বিক্রি হয়েছে পাইকারী ৩৯টাকা থেকে ৪০টাকা কেজি। নতুন সিম ১শ’ ৬০টাকা কেজি। তানোরে হাট-বাজার মূল্য নিয়ন্ত্রন মনিটরিং না থাকায় বিক্রেতারা ইচ্ছেমত দাম বেশী নিচ্ছেন।

শুকবার বিকালে সরেজমিন তানোর গোল্লাপাড়া হাটে গিয়ে দেখা গেছে, দেশি ছোট আলু ৪৬টাকা থেকে ৪৭টাকা কেজি ও হলান্ডের বড় আলু (কার্টিনাল) বিক্রি হয়েছে ৪৪টাকা থেকে ৪৫টাকা কেজি। অপর দিকে বেশী পেয়াজ ৮০ টাকা কেজি ও ভারতীয় পেয়াজ ৭০ টাকা কেজি।

পেয়াজের পাশাপাশি অন্যসব নিত্য প্রয়োজনীয় পন্যের দাম বেশ চড়া। বেগুন ৫০ টাকা থেকে ৬০ টাকা কেজি, ঢ্যারস ৬০ টাকা কেজি, পটল ৫০ টাকা থেকে কেজি, মিষ্টি কুমড়া ৪০ টাকা কেজি, করলা ৭০ টাকা কেজি, বরবটি ৬০ টাকা থেকে ৫০ টাকা কেজি, মুলাই ৪০ টাকা এবং কচু ৪০ টাকা কেজি, কাঁচা পেঁপে ৩০ টাকা কেজি, পালং শ্বাগ ৬০টাকা কেজি, লাল শ্বাগ ৮০টাকা কেজি, কাঁচা কলা ২৪টাকা হালি।

সেই সাথে দেশী মুরগী ৪শ’টাকা, বয়লার মরগী ১শ’ ২০টাকা লেয়ার ও সোনালী মুরগী ১শ’৬০টাকা কেজি দামে বিক্রি হচ্ছে। অন্যদিকে কালীগঞ্জ হাটে গরুর মাংস বিক্রি হয়েছে ৫শ’ টাকা থেকে ৫শ’ ২০টাকা কেজি।

সবজি বিক্রেতারা বলছেন, করোনার প্রভাবসহ বন্যার পানি বৃদ্ধি হওয়ার কারনে সবজির দাম বৃদ্ধি পেয়েছে, সবজির দাম বৃদ্ধির ফলে আলু’র দাম বৃদ্ধি পেয়েছে প্রায় ৪গুন বেশী।
তবে, ক্রেতা ও বিক্রেতারা যে যার মত করে দামাদামি করে বেচা-কেনা করছেন।

ক্রেতারা বলছেন, গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই গোল্লাপাড়া বাজারসহ প্রায় সকল হাট বাজারে বিভিন্ন সবজি ও নিত্যপন্যের দাম বেড়েছে। বিক্রেতারা বলেন, গত ২সপ্তাহ থেকে গোল্লাপাড়া হাটসহ বিভিন্ন হাটে সবজিসহ নিত্য পন্যোর দাম কেজিতে বেড়েছে ১০টাকা থেকে ১৫টাকা পর্যন্ত।

এবিষয়ে তানোর উপজেলা বাজার মনিটরিং কমিটির সভাপতি তানোর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুশান্ত কুমার মাহাতো বলেন, বিষয়টি আমারও কানে এসেছে, (আগামীকাল) আজ শনিবার থেকে অভিযান পরিচালনা করা হবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here