প্রচ্ছদ অন্যান্য পৃষ্ঠা ঠাকুরগাঁওয়ে ত্রানের কথা বলায় বৃদ্ধকে পেটালেন ইউপি সদস্য

ঠাকুরগাঁওয়ে ত্রানের কথা বলায় বৃদ্ধকে পেটালেন ইউপি সদস্য

4597
0
ফিরোজ সুলতান, ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি : ঠাকুরগাঁওয়ে ত্রাণের কথা বলায় ইউপি সদস্য কর্তৃক মারধরের শিকার হয়েছে ইসলাম উদ্দিন (৬৫) নামের এক বৃদ্ধ।

বুধবার (২৮ এপ্রিল) রাত ৯ টার সময় ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলার ২০ নং রুহিয়া পশ্চিম ইউনিয়নে ইউপি ভবনের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শীসুত্রে জানাযায়, রুহিয়া ৬ নাম্বার ওয়ার্ডের বাসিন্দা ইসলাম উদ্দিন ইউপি ভবনের সামনে এক দোকানে বলছিলেন “আমি একজন গরীব মানুষ অথচ সরকারি কোন সাহায্য পাইনা। একটা বয়স্ক ভাতার কার্ডও পেলাম না। সরকার তো অনেক কিছুই দিচ্ছে। আর মেম্বারের কাছে গেলে বলেন কিছুই আসেনি”। এ কথা শুনে গ্রাম পুলিশ বলাই চন্দ্র মুঠোফোনে ইউপি সদস্য বিশ্বনাথকে এসব কথা বললে তিনি এসে বৃদ্ধ ইসলাম উদ্দিনকে বেধরক মারধর করেন। এক পর্যায়ে বৃদ্ধ ইসলাম মাটিতে পড়ে গেলে তার ছেলে মোস্তাফা এগিয়ে আসলে চকিদার ও মেম্বারের বাহিনী তাকেও মারধর করে। পরে স্থানীয়রা বৃদ্ধ ইসলাম উদ্দীন ও তার ছেলেকে উদ্ধার করে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়।

ভুক্তভোগী ইসলাম উদ্দিন জানান, আমি দোকানে বসে নিজেই বলছিলাম যে সরকার গরীবদের জন্য এত কিছু করছে কিন্তু আমাদের মেম্বাররা বলে কিছুই আসেনি। এ কথা শুনে চকিদার মেম্বারকে ফোন করলে বিশ্বনাথ মেম্বার এসে আমাকে এলোপাথারি মারতে থাকে। এসময় আমার ছেলে বাচাতে আসলে তাকেও তারা জখম করে।

এ ব্যপারে ইউপি সদস্য বিশ্বনাথ বলেন, ইসলাম উদ্দিন আমাকে ও চেয়ারম্যানকে নিয়ে গালিগালাজ করে একথা শুনে গ্রাম পুলিশ বলাই আমাকে বলেন। আমি তখন চেয়ারম্যানকে বিষয়টা জানালে তিনি আমাকে ওই বৃদ্ধকে ২/৪টা চড় থাপ্পড় দিতে বলেন। অন্যদিকে  ইউপি চেয়ারম্যান অনিল কুমার সেন জানান, বৃদ্ধকে মারপিটের ব্যাপারে আমি কিছুই জানিনা।

রুহিয়া থানার ওসি চিত্যরঞ্জন কুমার রায় বলেন, ইউপি সদস্য এক বৃদ্ধকে মারধর করেছেন এটা শুনেছি। স্থানীয়ভাবে তাদের বসার কথা রয়েছে।