প্রচ্ছদ অন্যান্য পৃষ্ঠা পত্নীতলায় পরকীয়া জেরে মারপিটের ঘটনায় এক ব্যক্তির মৃত্যু

পত্নীতলায় পরকীয়া জেরে মারপিটের ঘটনায় এক ব্যক্তির মৃত্যু

219
0

পত্নীতলা (নওগাঁ) প্রতিনিধিঃ
নওগাঁর পত্নীতলায় পরকীয়ার জেরে মারপিটের ঘটনায় মিলন চন্দ্র সরকার (৪২) নামের এক ব্যক্তির মৃত্যু হয়েছে।
মিলন চন্দ্র উপজেলার মামুদপুর উত্তরপাড়া গ্রামের বিরেন চন্দ্রের ছেলে।
স্থানীয় ও থানা সূত্রে জানা যায় মৃত মিলনের ১০ বিঘা জমি পাশের বালুঘা গ্রামের আদিবাসী কৃষক খিতিশ ও বুদু বর্গা চাষ করতো এই সুবাধে মিলন তাদের বাড়িতে যাওয়া আসা করতো, মিলন প্রতিনিয়ত সন্ধার পর যেত এবং এশার আযানের সময় ফিরে যেত। আবার কোন কোন রাত খিতিশের বাড়িতে থেকে যেত সেখানে নেশাও করত( চুয়ানি, রস)। এতে প্রতিবেশীরা সন্দেহ করতো যে মিলন এবং খিতিশের স্ত্রী লিলি মার্ডির সাথে মিলনের অনৈতিক সম্পর্ক আছে। তাই প্রতিবেশীরা খিতিশের পরিবার ও মিলন কে নিষেদ করেছে ওই বাড়ীতে না আসে ।নিষেধের পরও গত শনিবার ২৯ মে সন্ধ্যায় আবার মিলন ওই বাড়িতে যায় প্রতিবেশীরা তাকে চলে যেতে বললে কথাকাটা কথাটির এক পর্যায়ে খিতিশের প্রতিবেশিরা মিলন কে দেশীয় লাঠিসোটা ও বটি দিয়ে আঘাত করলে মিলন পরে যায় স্থানীয় ভ্যান চালকের মাধ্যমে এলাকায় এক চিকিৎসকের কাছে নিয়ে যায় প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে তাকে তার বাড়ীতে পৌছে দেন এবং মিলনের স্ত্রীকে বলেন এ্যাক্সিডেন্ট করেছে মিলন।
পরের দিন তার পরিবারের লোক জন তাকে নওগাঁ ইসলামী ক্লিনিকে চিকিৎসা করিয়ে বাড়িতে নিযে আসেন। গত ৩০ মে রাতে তার শারিরিক অবস্থা খারাপ হলে স্বজনরা তাকে পত্নীতলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স ভর্তি করেন কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য রামেক হাসপাতালে রেফার্ড করেন তাকে সকালে নিয়ে যাবে এ অবস্থায় আজ রবিবার ৩১ মে ভোর ৫ টায় মৃত হয়।

এ বিষয়ে পত্নীতলা থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শামসুল আলম শাহ জানান এ ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৬ জন কে আটক করা হয়েছে। মামলার প্রস্তুতি চলছে। লাশ ময়না তদন্তের পর পরিবারের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে।

পুলিশ প্রাথমিক ভাবে ধারনা করছে মিলন ও লিলির মাঝে কোন পরকিয়া সম্পর্ক থাকতে পারে তদন্তের মাধ্যমে আসল রহস্য জানা যাবে।