প্রচ্ছদ অন্যান্য পৃষ্ঠা প্রকল্প হরিলুটের অভিযোগকারীকে আটক করলেন ভোলাহাটের ইউএনও

প্রকল্প হরিলুটের অভিযোগকারীকে আটক করলেন ভোলাহাটের ইউএনও

373
0
ভোলাহাট (চাঁপাই নবাবগঞ্জ) প্রতিনিধিঃ প্রকল্প হরিলুটের অভিযোগকারীকে আটক করলেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার সমর কুমার পাল। ২৮ জুন সোমবার বেলা এগারোটার সময় প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) কাউছার আলম সরকার উপজেলা ফার্নিচার শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক তিলোকী গ্রামের মোজাহারুল ইসলামের ছেলে নাসিমুল (৩৫)কে মোবাইল ফোনে ডেকে পাঠানো হলে নাসিমুল তার অফিসে যায়। সেখানে বিভিন্ন ধরনের হুমকিধামকি দিতে থাকে পিআইও। একপর্যায়ে নাসিমুলকে ডেকে পাঠায় ভোলাহাট ইউএনও সমর কুমার পাল। সেখানে নাসিমুলকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন ইউএনও, নাসিমুলকে বলেন আপনি কেন অভিযোগ করেছেন?প্রতিত্তোরে নাসিমুল বলেন কাজ ঠিকঠাক মত হয়নি তাই কিন্তু এতে ক্ষান্ত না হয়ে ইউএনও’র পাশের রুমে আটকে রাখার জন্য নির্দেশ দেন দায়িত্বে থাকা আনসার সদস্যকে। তাকে দুই থেকে আাড়াই ঘন্টা আটক করে রাখা হয় বলে অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী নাসিমুল হক। তিনি আরও অভিযোগ করে বলেন আমাকে এখান (ইউএনও অফিস) থেকে সােজায় বাড়ি যেতে না গেলে চাঁদাবাজি, মাদক সহ বিভিন্ন মামলায় জড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেন ইউএনও সমর কুমার পাল। এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার সমর কুমার পালের সাথে যোগাযোগ করা হলে তার কাছে থাকা সরকারি এই ০১৩১৮৩২০১৪১ নম্বরে ফোন করে তাকে পাওয়া যায়নি। এদিকে উপজেলা বাস্তবায়ন কর্মকর্তা কাউছার আলম সরকারের সাথে তার সরকারি এই ০১৮৮২৩৯৩০১৩ ফোন করে তাকেও পাওয়া যায়নি। উল্লেখ্য গত ১২ জুন প্রধানমন্ত্রী বরাবর সুরানপুরের কাবিটা প্রকল্পের চার লক্ষ টাকার হরিলুটের অভিযোগ করায় ইউএনও এবং পিআইও নাসিমুলকে আটকে রাখা রেখেছিল বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। এখন ভুক্তভোগী নাসিমুলের দাবী সুষ্ঠু তদন্ত এবং সুষ্ঠু বিচারের। তিনি দাবি করে বলেন আমাকে অন্যায়ভাবে জোরপূর্বক কেন আটকে রেখে হুমকিধামকি দেওয়া হলো এজন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নিকট আমি বিচার প্রার্থী।